বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে নবম শ্রেণীর ছাত্রীকে ধর্ষণ যুবক আটক

manobkollan
নওগাঁ ভ্রাম্যমান প্রতিনিধিঃ হাবিবুর রহমান (হাবিব)
নওগাঁর মান্দা উপজেলায় ৯ম শ্রেণীর স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণ করার সময় হাতে নাতে অলিপ চন্দ্র পাল (২৫) নামে একজনকে আটক করে পুলিশের হাতে সপর্দ করেছে গ্রামবাসী। আটক অলিপ চদ্র পাল নওগাঁর মহাদেবপুর উপজেলার যোথরী গ্রামের অতুল চন্দ্র পালের ছেলে। সে সনাতন ধর্মালম্বী। এ বিষয়ে ধর্ষণের শিকার মোছাঃ রিনা খাতুন বলেন, আটক অলিপের সাথে রিনার এক বছর আগে মোবাইল ফোনে পরিচয় হয়। তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। রিনা বলেন অলিপ আমাকে মুসলিম বলে পরিচয় দেন।
রিনা আরোও বলেন, অলিপ রিনার সাথে প্রতিদিন কথা বলতো এবং বিয়ে করার প্রতিশ্রুতি দিতো।অলিপ গতকাল ২২অক্টোবর (বৃহস্পতিবার) রাতে রিনার বাড়ীতে আসেন। রিনার ঘরে ঢুকেন, রিনাকে বিয়ে করার কথা বলে কয়েকবার শারীরিক সম্পর্ক করেন।
শারীরিক সম্পর্ক করার পর রিনাকে বিয়ে করতে পারবেনা বললে তাদের মধ্যে কথা কাটাকাটি শুরু হয়, এক পর্যায়ে পাশের রুম থেকে রিনার বাবা আব্বাস তাদের কথা শুনতে পান, তিনি এসে মেয়েকে ডাকেন, তখন রিনা দরজা খুলে দিলে রিনার বাবা গভীর রাতে তাকে হাতেনাতে তাকে আটক করে। এ ঘঠনা শুনার পর গ্রামবাসী ঘঠনাস্থলে আসেন এবং ইউঃ পি সদস্য এবং মহিলা ইউঃ পি সদস্য কে খবর দেন।
তারা এসে ঘটনা দেখে থানাতে খবর দিলে, এস আই হাবিব ঘঠনাস্থলে গিয়ে অলিপকে আটক করে থানাতে নিয়ে আসেন। ভুক্তভোগী রিনা মান্দা উপজেলার কালিকাপুর (জংলী পাড়া) গ্রামের আব্বাস এর মেয়ে, সে মান্দা এম সি পাইলট স্কুল এ্যান্ড কলেজের নবম শ্রেণীর ছাত্রী। এব্যাপারে রিনার বাবা বাদি হয়ে মান্দা থানাতে ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন।
এ বিষয়ে মান্দা থানা ওসি (তদন্ত) তারেকুর রহমানে বলেন, রিনার বাবা আমাদের কাছে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন, এবং অভিযুক্ত অলিপকে তারা আটক করে আমাদের কাছে হস্তান্তর করেছেন, মামলা দায়ের পূর্বক আগামীকাল আসামিকে নওগাঁ জেল হাজতে প্রেরন করা হবে।

Author: Mansur Talukder