1. admin@manobkollan.com : admin :
  2. mkltdnews@gmail.com : Anamul Gazi : Anamul Gazi
  3. mkltd2020@gmail.com : Mehedi Hasan : Mehedi Hasan
  4. riff1431@gmail.com : Shariar R. Arif : Shariar R. Arif
  5. dxd9807@gmail.com : Sohel Mahmud : Sohel Mahmud
আউশকান্দি ইউপি’র পরিত্যক্ত একটি ভবনে গৃহবধূ গণধর্ষণের পাওয়া গিয়েছে - মানব কল্যাণ - Manobkollan
সোমবার, ০১ মার্চ ২০২১, ০৬:৫১ অপরাহ্ন
নোটিশঃ
আসসালামু আলাইকুম  মানবকল্যাণ এর সাথে যুক্ত হওয়ার জন্য  আপনাকে অভিনন্দন। আমরা আপনাদের সহযোগীতায় একদিন শিখরে পৌছাব "ই"। ইনশাআল্লাহ । বিজ্ঞপ্তিঃ সারাদেশব্যপী প্রতিনিধি নিয়োগ চলিতেছে।   ই-মেইলঃ info@manobkollan.com ফোন নাম্বারঃ 01718863323

আউশকান্দি ইউপি’র পরিত্যক্ত একটি ভবনে গৃহবধূ গণধর্ষণের পাওয়া গিয়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • Update Time : মঙ্গলবার, ৬ অক্টোবর, ২০২০

মৌলভীবাজার সদর প্রতিনিধি:

সোমবার (৫ অক্টোবর) বিষয়টি জানাজানি হলে স্থানীয় কিছু মাতব্বর ও জনপ্রতিনিধিরা মিমাংসা ও রফাদফা করার চেষ্টা করলেও ঘটনাটি মূহুর্তেই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেইসবুকসহ সর্বত্র তোলপাড় সৃষ্টি করে দেয়৷

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, দেবপাড়া ইউপির কালাভরপুর গ্রামের জনৈক এক গৃহবধূ দীর্ঘদিন থেকে সঈদপুর বাজার এলাকায় একটি ভাড়া বাসায় বসবাস করে আসছেন। কয়েকদিন আগে ঐ গৃহবধূ রহস্যজনক ভাবে নিখোঁজের ঘটনা ঘটে।

বিষয়টি নিয়ে গৃহবধূ বলেন- গত রবিবার বিকেল ৫টায় শেরপুর বাজার থেকে একটি সিএনজি (অটোরিকশা) দিয়ে আত্নীয়ের বাড়িতে যাওয়ার পথে অজ্ঞাতনামা চালকসহ ৩জন যুবক হাতপা বেঁধে অপহরণ করে নিয়ে যায়। গভীর রাতে আউশকান্দি ইউপির একটি পরিত্যক্ত ভবনে নিয়ে তাকে আরও প্রায় ৭ জন দলবদ্ধ হয়ে পালাক্রমে ধর্ষণ করে৷ সকাল হলে তাকে একটি সিএনজি দিয়ে আত্মীয়ের বাড়ীতে পাঠিয়ে দেওয়া হয়।

এরইমধ্যে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে গণধর্ষণের খবর ছড়িয়ে পরলে নবীগঞ্জ-বাহুবলের সার্কেল এএসপি পারভেজ আলম চৌধুরী ও নবীগঞ্জ থানার ওসি মোঃ আজিজুর রহমানের নেতৃত্বে পুলিশের দুইটি দল ঘটনাস্থলে এসে ঐ গৃহবধুকে উদ্ধার করে।

পরে পুলিশ ও গণমাধ্যমকর্মীদের জিজ্ঞাসাবাদে ধর্ষিত গৃহবধূ একেকবার একেক ধরণের চাঞ্চল্যকর তথ্য দিতে থাকেন৷ সে তার বক্তব্যে কখনো ৩ জন, কখনো ১৪ থেকে ২১ জনের দ্বারা ধর্ষিত হয়েছে বলে জানায়। এতে করে বিষয়টি রহস্যময় হয়ে ওঠে৷

আউশকান্দি ইউপি চেয়ারম্যান মহিবুর রহমান হারুনের সাথে যোগাযোগ হলে তিনি বলেন, মহিলার অসংলগ্ন বক্তব্যে সবার মধ্যে চাঞ্চল্যকর মনে হচ্ছে। বিষয়টি প্রশাসনের মানুষ খতিয়ে দেখছেন।

নবীগঞ্জ-বাহুবলের সার্কেল এএসপি পারভেজ আলম চৌধুরীর বিষয়টি নিয়ে বলেন, ঐ গৃহবধূর একেকবার একেক বক্তব্য দিয়ে আসছে। তাই আসল রহস্য উদঘাটনে কিছুটা সময়ের প্রয়োজন হচ্ছে৷ বিষয়টি গভীরভাবে খতিয়ে দেখা হচ্ছে। ভিকটিম মহিলা ও তার স্বামীকে থানা হেফাজতে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। আশাকরি রাতের মধ্যে আসল রহস্য উদঘাটন হবে।

3 ভিউস

সোসাল মিডিয়ায় সেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও সংবাদ

বিভাগ

Development Nillhost
error: Content is protected !!