কালকিনিতে বিয়ের দাবিতে ৫ দিন প্রেমিকের বাড়িতে অবস্থান প্রেমিকার

কালকিনিতে বিয়ের দাবিতে ৫ দিন যাবত প্রেমিকের বাড়িতে অবস্থান প্রেমিকার

মাদারীপুরের কালকিনিতে বিয়ের দাবিতে গত ৫ দিন যাবত প্রেমিকের বাড়িতে অবস্থান করছেন প্রেমিকা।
কালকিনি উপজেলার বড়চর কয়ারিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। তবে স্থানীয় মাতুব্বর বিরাজ সিকদার বিষয়টি ধাঁমাচাঁপা দেয়ার চেস্টায় কালক্ষেপন করছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।
সরেজমিন,ভুক্তভোগী ও স্থানীয় সুত্রে জানাযায়,
কালকিনি উপজেলার বড়চর কয়ারিয়া গ্রামের মৃত্যু কবির সিকদারের ছেলে মোঃ রবিউল সিকদার(২৫) বিয়ে করা জন্য মেয়ে খুজছেন। একপর্যায় পারিবারিক ভাবে উপজেলার দক্ষিন রমজানপুর গ্রামের রোকন সরদারের মেয়ে রাবেয়া আক্তার(১৯) পছন্দ করেন। এবং কিছুদিন পড়ে বিয়ে করবে বলে মেয়ের পরিবারকে কথাদেন। এরই ধারাবাহিকতায় ছেলে রবিউল ইসলাম ওই মেয়ের সাথে মোবাইলে মাধ্যমে কথা বলে গভীর সম্পর্ক গড়ে তুলেন। এবং মেয়ের বাড়িতে নিয়মিত যাতায়াত অব্যাহত রাখেন। কিছুদিন পড়ে বিয়ে করবো করবো বলে কালক্ষেপন করেন বলে জানাযায়।
বিয়ের অপেক্ষার বাঁধভেঙ্গে গেলে প্রেমিকা রাবেয়া আক্তার বিয়ের দাবিতে গত ৩০/০৫/২০২১ইং রোজ রবিবার সকালে প্রেমিক রবিউল ইসলামের বাড়িতে অবস্থান করছেন।
এ ব্যাপারে রাবেয়া আক্তার বলেন, গত একবছর যাবত রবিউলের সাথে আমার সম্পর্ক এবং আমাকেই বিয়ে করবে বলে কথা দিয়ে, আমার সাথে স্বামী স্ত্রীর সম্পর্কে একাধিকবা শারিরিক সম্পর্ক করে থাকেন।
এখন হঠাৎ করে শুনতে পাই,অন্যযায়গায় বিয়ে করার জন্য মেয়ে দেখতেছেন। আমার জীবনের সবকিছু শেষ করে অন্য যায়গায় বিয়ে করবে,তাই বিয়ের দাবিতে রবিউলের বাড়িতে আসছি। ওযদি আমাকে বিয়ে না করে তাহলে আমার আত্মহত্যা করতে হবে।
এ ব্যাপারে রবিউলের মা মোসাঃ খুকি বেগম বলেন, রবিউলকে বিয়ে করাবো বলে পারিবারিক ভাবে রাবেয়াকে দেখতে গিয়েছিলাম কিন্তু ছেলে সাথে পড়ে কি ঘটছে যানিনা।
এ ব্যাপারে মেয়ের বাবা রোকন সরদার বলেন, স্থানীয় মাতুব্বর বিরাজ সিকদার সমাধান করে দিব বলে কথা দিয়েছে। যে কারনে থানায় গিয়েও ফিরে আসছি। আজ পাঁচ চলে যাইতেছে কোন সমাধান করছেন না, মনে হচ্ছে বিষয়টি ধাঁমাচাপা দিবে তাই অপেক্ষা করাচ্ছেন।

Author: Mansur Talukder

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *