সফলতার পঞ্চম বর্ষে  পেকুয়া গ্লোরিয়াস ফাউন্ডেশন – মানব কল্যাণ

মোঃজহিরুল ইসলাম
কক্সবাজার পেকুয়া প্রতিনিধি:
এসএসসি ও সমমান পরীক্ষা প্রকাশিত ফলাফলে কক্সবাজারের পেকুয়ায় শতভাগ সাফল্য অর্জন করেছে গ্লোরিয়াস এডুকেশন কেয়ার। প্রতি বছরের ন্যায় এবারও এই সাফল্য অর্জন করায় শিক্ষার্থীদের মাঝে আনন্দের আমেজ দেখা গেছে। হাজার ২০১৫ সালের গ্লোরিয়াস ফাউন্ডেশন কর্তৃক পরিচালনায় এ প্রতিষ্ঠানটির যাত্রা শুরু হয়। উপজেলার প্রাণকেন্দ্র চৌমুহনী কলেজ গেইটের পাশে অবস্থিত এই এডুকেশন কেয়ার। এ প্রতিষ্ঠান থেকে এসএসসি ও দাখিল পরীক্ষায় ৩৫ জন শিক্ষার্থী অংশ নেয়।
রবিবার ৩১ মে সারাদেশে এসএসসি ও দাখিল পরীক্ষার ফল প্রকাশিত হয়। প্রকাশিত ফলাফলে ওই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে সফলতার সাথে ৯ জন জিপিএ-৫ (গোল্ডেন এ প্লাস) পেয়েছে এরা হলেন, যথাক্রমে আফরোজা সুলতানা প্রিয়া, জান্নাতুল নাঈম সিফাত, জোহরা তাবাসসুম তাসিন, জান্নাতুল নাঈম, জাহিদুল ইসলাম, মহাম্মদ সায়েদ, মহাম্মদ ইব্রাহিম, হিজবুল্লাহ গালিব ও মোঃ শফিউল্লাহ জামি।
অপরদিকে কৃতিত্বের সাথে এ প্লাস পেয়েছে ২৬ জন শিক্ষার্থী। উত্তীর্ণ ছাত্রছাত্রীরা হলেন, সানজিদা ইসলাম ফাইমা, জান্নাতুল ইসলাম আয়মন, আনুশকা আফরিন, রেশমী সোলতানা জেকি, নাহিদা সুলতানা রেশমী, মিফতাহুল জান্নাত সামিরা, নাফিজা সোলতানা, জান্নাতুল ফেরদৌস লাকি, আব্দুল্লাহ হাসনাত আবির, আবিদ মোঃ আমিরুল হক, সাইদুর রহমান রুবেল, ইয়াসিন আরাফাত রাকিব, ফয়সাল মুহাম্মদ আতিক, শাহরিয়ার মহাম্মদ শাকিল, আল জিন্দেনুর রোদশী, ইমরিয়াজ মাহমুদ সজিব, তামিমুল ইসলাম তামিম, মহাম্মদ সোহেল উদ্দিন, রিজভী রহমান রামি, আব্দুল্লাহ মোঃ নাহিয়ান, মোহাম্মদ ইব্রাহিম, হাবিবুর রহমান বাবু, আব্দুল আলিম বাহার, মুহাম্মদ তানজিল, আবুল হাসনাত ফাহিম ও মজাহিদুল ইসলাম ইফাজ সফলতার সাথে পাস করে গৌরব অর্জন করেছে।
সুত্র জানায়, পেকুয়া উপজেলায় সব কটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে জিপিএ-৫ ও এ প্লাস পেয়েছে ৪১ জন শিক্ষার্থী। এসএসসি ও সমমান পরীক্ষায় উপজেলার মধ্যে ৪১জন শিক্ষার্থী(A+)কৃতিত্বের স্বাক্ষর রাখেন। তবে এরই মধ্যে ৩৫ জন শিক্ষার্থী A+ পেয়েছেন গ্লোরিয়াস এডুকেশন কেয়ার থেকে। যুগের সাথে তাল মিলিয়ে শতাব্দীর চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় এবারের ফল প্রকাশে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন গ্লোরিয়াসের পরিচালনা পরিষদ, অভিভাবক ও পেকুয়ার সচেতন মহল।
উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের মধ্যে জান্নাতুল নাঈম এর অভিভাবক এডভোকেট কামাল হোসেন বলেন, সফলতার মুখ্য কারণ হচ্ছে শিক্ষকদের আন্তরিক প্রচেষ্টা। অভিজ্ঞ শিক্ষক দ্বারা পাঠদান করে থাকেন ওই প্রতিষ্ঠানটি। সর্বোপরি ছাত্র-ছাত্রীদের কঠোর পরিশ্রমের পিছনে শিক্ষকদের নিরলস কার্যক্রমের ফলে শিক্ষার্থীদের এই বড় সাফল্য।
এদিকে গ্লোরিয়াসে এডুকেশন কেয়ারের পরিচালক- মোঃ মোশাররফ হোছাইন ও শিক্ষক মোহাম্মদ মোরাদুল কাদের মনির জানান, এক ঝাঁক তরুণ মেধাবী ও আদর্শ শিক্ষক দ্বারা শিক্ষিত জাতি গঠনে এ প্রতিষ্ঠানটির সুন্দর আগামীর পথ চলা। দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের মেধাবী শিক্ষার্থীরা এ প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক। তাদের কঠোর পরিশ্রমে আজকে আমাদের এ সাফল্য।

Author: Mansur Talukder

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *