নোয়াখালীতে বেপরোয়া গতির অ্যাম্বুলেন্সের ধাক্কায় যুবকের মৃত্যু, আটক ১

সড়ক দুর্ঘটনা

নোয়াখালীতে বেপরোয়া গতির অ্যাম্বুলেন্সের ধাক্কায় যুবকের মৃত্যু, আটক ১

“ও মার বাচারে তুই বুঝি আর মা কই ডাকতিনো আঁরে “নিহত হাবিবুল্লাহর মায়ের চিৎকারে পরিবেশ ভারি হয়ে যাচ্ছে। থামানো যাচ্ছে না আত্নীয় স্বজনের আর্তনাদ।

নোয়াখালীর সদর উপজেলার ধর্মপুর ইউনিয়নের গ্রামের ল্যাংড়ার দোকান এলাকায় বেপরোয়া গতির অ্যাম্বুলেন্সের ধাক্কায় এক সিএনজি যাত্রী যুবকের মৃত্যু হয়েছে। নিহত শেখ মোহাম্মদ হাবিবুল্লাহ (২৮), কোম্পানীগঞ্জের চর এলাহী ইউনিয়নের চর কলমি গ্রামের মৃত কালা মিয়ার ছেলে।

রোববার (১১ এপ্রিল) দুপুর ২টার দিকে চরজব্বর থানার পুলিশ সুরতহাল করে ময়না তদন্তের জন্য মরদেহ নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করে।

স্থানীয় বাসিন্দা সোহেল জানান, শনিবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে সুবর্ণচর উপজেলা থেকে জেলা শহর মাইজদী যাওয়ার পথে যাত্রীবাহী চলন্ত সিএনজিকে পিছন থেকে একটি অ্যাম্বুলেন্স ধাক্কা দিলে ঘটনাস্থলেই সিএনজি যাত্রী হাবিবুল্লাহ মারা যায়।

পরে ঘাতক অ্যাম্বুলেন্স ড্রাইভার দুর্ঘটনা ঘটিয়ে গাড়ি নিয়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় স্থানীয়রা ধাওয়া করে সুবর্ণচর উপজেলার থানার হাট বাজার থেকে গতিরোধ করে তাকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে। অপরদিকে, খবর পেয়ে চরজব্বার থানা পুলিশ শনিবার রাত ১২টার দিকে মরদেহ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

চরজব্বার থানা সূত্রে জানা যায়, আটককৃত অ্যাম্বুলেন্স ড্রাইভার রফিকুল (৪০), জামালপুর জেলার সিরাজুল হকের ছেলে। চরজব্বার থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) জিয়াউল হক আরিফ খন্দকার ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, মরদেহ ময়না তদন্তের জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। যেহেতু দুর্ঘটনাস্থল সুধারাম থানার অধীনে তাই বিকেলের দিকে আটককৃত অ্যাম্বুলেন্স ড্রাইভারকে সুধারাম থানায় হস্তান্তর করা হবে। পরবর্তীতে সুধারাম থানা এ ঘটনায় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।

Author: Mansur Talukder

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *